সাহেদ ও ভুট্রোর বিরোদ্ধে ইসালমপুর কৈলাসেরঘোনা ইজারাদারদের প্রতিবাদ সমাবেশ

0
254

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ

কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামপুর কৈলাসেরঘোনার ইজারাদারদের প্রতিবাদসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে নতুন অফিস বাজারের রিফাত সড়কে প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, গত ৯ সেপ্টেম্বর নতুন অফিস বাজার আল-আমিন সুপার মার্কেটের সামনে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তাদের দেয়া বক্তব্যগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। তাতে বাস্তবতার কোন মিল নেই।

সভায় বক্তারা বলেন, কৈলাসেরঘোনা পরিচালানা কমিটি থেকে আমরা বর্ষায় মাছ চাষের জন্য ইজারা নিয়েছি প্রতি কানি ১০ হাজার ১০০টা করে। তার মধ্যে আমরা ৫ হাজার টাকা করে দিয়েছি, হঠাৎ করোনা ভাইরাসের প্রভাব পড়ে গেলে আমরা মাছ সরবরাহ করতে পারি নাই। তাছাড়া মাছের দাম আগের চেয়ে অনেক কমে যায়। যার কারণে জমির মালিকদের টাকা দিতে আমাদের মাঝে একটু দেরি হচ্ছে। আমরা চেষ্টা করছি খুব তাড়াতাড়ি তাদের টাকা দিয়ে দিবো। এটার সাথে ভূমি দখলের কোন সম্পর্ক নেই। কিন্তু এই বিষয় কে পুজি করে কিছু কুচক্রী মহল আমাদের বিরোদ্ধে ভুমি দখলের অভিযোগ দিয়ে মিথ্যা ও প্রতিহিংসামূলক সমাবেশ করেন।

আমাদের মাঝে অনেক জমির মালিক আছে আমরা কোন দিন কারো জায়গা দখলে যাই নি। আমাদের জমির মাঝে কিছু জায়গা খাস জমি রয়েছে যেগুলো আমরা অনেক বছর ধরে ভোগ করে আসছি।
বক্তারা আরো বলেন, আমাদের কৈলাসেরঘোনা পরিচালানা কমিটি ও ইজারাদারের সাথে বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম কোন রকম জড়িত নেই। এর আগে প্রতিবাদ সভায় চেয়ারম্যান জড়িত আছে বলে প্রকাশ করে ছিল যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।
প্রতিবাদ সভায় ৪টি দাবি পেশ করা হয়।১. গোল্ডেন ফার্মের ভিতরে বন্ধ করা নৌকা চলাচলের খাল খুলে দেওয়া২. উত্তরের ভরা খালের ১৫ কানি জমির খাজানা আদায়।৩. মসজিদের ৮ কানি জমির পুনরুদ্ধার।৪.অস্ত্র পাচার ও অপপ্রচারকারি সাহেদ কে দ্রুত গ্রেপ্তার।

এই বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান আবুল কালাম বলেন- কৈলাসেরঘোনা ইজারাদারের সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই। এই বিষয়ে আমি কিছু জানিনা তবে গত মিটিয়ে মাইকের মধ্যে আমাকে কেন গালিগালাজ করা হলো আমার বোধগম্য নই। তিনি আরো বলেন-  ঘটনার সাথে কথিত সাংবাদিক  শাহেদ ও সৈনিক মিজান, সিরাজ জড়িত বলে আমার মনে হচ্ছে। তাই প্রসাশনের কাছে দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই সঠিক তদন্ত করে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হোক। এবং আমি একজন বর্তমান চেয়ারম্যান আমার সম্মান নষ্ট করার কারণে মানহানি মামলা করবো  ও আইনের আশ্রয় নিবো।

প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন –এলাকার স্থানীয় ব্যবসায়ী এনাম, মৌলানা মনছুর, সাবেক মেম্বার নুরুল আজিম, ছৈয়দ আলম, জসিম উদ্দীন, ইকবাল, বাবুল। প্রতিবাদ সভায় বিভিন্ন শ্রেণীর পেশাজীবি মানুষ অংশ গ্রহণ ও বক্তব্য রাখেন। এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে অপপ্রচারকারীদের গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

article bottom

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here