কিভাবে একজন প্রফেশনাল ব্লগার হওয়া যায়

0
201
প্রফেশনাল ব্লগার

আপনি যদি প্রফেশনাল ব্লগার হতে চান বা কাজ করার কথা ভাবছেন তাহলে একজন প্রফেশনাল ব্লগার হয়ে দাঁড়ানোর স্বপ্ন অবশ্যই মনে রেখেছেন । প্রফেশনাল ব্লগার হয়ে ওঠা মানেই ঘরে বসে অনলাইনের টাকা আয়ের সহজ মাধ্যম ।


প্রফেশনাল ব্লগার হতে হলে আপনাকে প্রচুর পরিমানে কাজ করার করতে হবে ।ব্লগার বানিয়ে তাতে আর্টিকেল লিখেই আপনি প্রফেশনাল ব্লগার হতে পারবেন না প্রফেশনাল ব্লগার হতে হলে আপনাকে বিশেষ ধ্যান দিয়ে কাজ করতে হবে।


প্রথম দিকে আপনাকে অনেক পরিশ্রম করতে হবে প্রফেশনাল ব্লগার হতে চাইলে,প্রথম প্রথম আপনি ছোট আর বড় সব ধরনের ভুল করতে পারেন সেই ভুল থেকে আপনি শিক্ষা নিয়ে সামনের দিকে যাবেন । আমি এমন ব্লগার দেখেছি তারা এই ভুল গুলো বেশি করে থাকে ।


তারা হুট করে ব্লগার করতে চাই কোন টপিক সিলেক্ট না করে নেমে পড়ে আর ডোমেইন নেইম নিয়ে নেয়। এই ভুল টা বেশিভাগ নতুন ব্লগাররা বেশি করে থাকে। ডোমেইন কি এই নিয়ে পরিবর্তী টপিকে আলোচনা করবো।আজকের আলোচনা করবো কি ভাবে একজন প্রফেশনাল ব্লগার হওয়া যায়। একজন প্রফেশনাল ব্লগার হওয়াটা কোনো ভাবেই সহজ কাজ না। প্রচুর পরিমানে সময়,দক্ষতা এবং নলেজের প্রয়োজন হয় এই কাজে।
নিজের ব্লগার ফ্যাশন কে ফুল টাইম সময় দিয়ে টাকা আয় করার মাধ্যমে পরিবর্তন করাটা সবারই পক্ষে সম্ভব হয় না। যদি আপনার মধ্যে ধর্য্য শক্তি আছে এবং নতুন জিনিস শেখার ক্ষমতা রয়েছে তাহলে আপনি একজন সফল ব্লগার হওয়ার প্রথম যোগ্যতা আপনার মধ্যে আছে।

ব্লগার কি?
ব্লগ শব্দটি ইংরেজী (Blog) এর বাংলা প্রতিশব্দ অনলাইনে ব্যক্তিগত দিনলিপি । ইংরেজী (Blog) শব্দটি আবার weblog সংক্ষিপ্ত রুপ। যিনি ব্লগ লিখে ব্লগারে পোস্ট করেন তাকে ব্লগার বলা হয়। ব্লগার পোস্ট করতে হলে আপনার একটি ওয়েবসাইট থাকতে হবে।

এই ওয়েবসাইটি হতে পারে ফ্রী বা টাকা দিয়ে বানানো কিভাবে একটি ফ্রী ওয়েবসাইট তৈরী করতে হয় তা নিয়ে পরবর্তী টপিকে আলোচনা করবো।ব্লগার হলো সেই ব্যাক্তিকে বলা হয়,যে নিজের জীবিকা নির্বাহের জন্য ফুল টাইম ধরে ব্লগারে লেখা লেখি করে টাকা আয় করে থাকে।

প্রফেশনাল ব্লগার কি ভাবে হতে পারবেন:
প্রফেশনাল ব্লগার কি ভাবে হবেন এই নিয়ে কিছু বিষয় আলোচনা করতেছি। এই বিষয় ভালো করে জানার পর আপনার ব্লগিং করা শুরু করা উচিত। এই বিষয় গুলি ভালো ভাবে জানার পর আপনি একজন প্রফেশনাল ব্লগার হয়ে ওঠতে পারবেন।

ব্লগার বিষয় বা টপিক : ব্লগিংকে ক্যারিয়ার হিসাবে নিতে চাইলে আমাদের একটা ভালো টপিক নির্বাচন করতে হবে।কি রকম টপিক নির্বাচন করবো আমরা তো জানিনা কেমন টপিক হতে হবে প্রথমে নিজেকে প্রশ্ন করুন আপনি কোন বিষয় নিয়ে পারদর্শী সে বিষয় নিয়ে লেখা লেখি শুরু করে দিতে পারেন।


আপনি চাইলে টেকনোলোজি দিয়ে শুরু করে দিতে পারেন এটার চাহিদা সারা বিশে^ রয়েছে। আপনি চাইলে মোবাইল রিভিউ, ইন্টারনেট টিপস, হেল্থ টিপস, খাবারে রিভিউ, ছোট গল্প এই গুলো দিয়ে শুরু করতে পারেন।


বর্তমানে কে না পছন্দ করে টেকনোলোজি আর খাবার সর্ম্পকে জানতে অনেক চাহিদা রয়েছে এই বিষয় নিয়ে। গুগল এডসেন্স এর উপর নির্ভর করে দেশীয় ব্লগাররা আপনার ব্লগকে যদি বেশি ট্রাফিক থাকে তাহলে ভালো একটা ইনকাম করা সম্ভব ব্লগ থেকে।
এমন টপিক নিয়ে ব্লগ করুন সে বিষয় নিয়ে আপনার ভালো জ্ঞান রয়েছে কারণ বøগিং একদিনের কাজ নয়। প্রতিদিন এইখানে ভালো কিছু লিখতে হবে আপনার থেকে। এমন বিষয় নিয়ে শুরু করা উচিত সে বিষয় এর প্রতি আপনার আগ্রহ আছে সে বিষয় নিয়ে শুরু কার উচিত নয় যে বিষয়ে আপনার জ্ঞান নেই কিছু দিন পর আপনার এই বিষয় নিয়ে আর ভালো লাগবে না।

জানা বিষয় নিয়ে কাজ শুরু করলে,আপনার ব্লগের প্রতি আগ্রহ থাকবে বেশী। প্রতিদিন নতুন নতুন কিছু এই ব্লগকের মধ্যে লিখালেখি করতে পারবেন। একজন প্রফেশনাল ব্লগার হওয়ার জন্য সবচেয়ে প্রথমেই আপনাদেও বেঁচে নিতে হবে একটা ভালো মানের বিষয় বা টপিক । আপনাদের কে একটা টুল সর্ম্পকে বলে রাখি keyword tool
এটা হলো মানুষ কি বিষয় নিয়ে গুগলে সার্চ হচ্ছে ‍সে বিষয় জানতে পারবেন নিছের ছবি টা দেখুন।

ব্লগার কে ফ্যাশন হিসাবে নিন:
আপনি যখন ব্লগ কে ফ্যাশন হিসাবে নিয়ে কাজ করবেন তখন আপনার কাজের প্রতি অনেক ভালো লাগা শুরু হবে। ব্লগিং করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন প্রথম দিকে আপনি এইখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন এই ব্লগকে প্রথমে সময় দিতে হবে। মনে করুন আপনি একটা ব্যবসা শুরু করলেন প্রথম অবস্থায় আপনি লাভের কথাটা যেমন ভাবেন না ঠিক তেমনি এইখানেও লাভের কথাটা ভাববেন না।

এইখানে সময় দিন ঠিক এক সময় দেখবেন এইখান থেকে ভালো একটা ইনকাম শুরু করতে পারবেন ব্লগকে যখন ব্যবসা হিসাবে নিবেন তখন কিছু দিনের মধ্যেই আপনার লাভ হওয়া টাও শুরু হতে থাকবে।ব্যবসা তে যেমন আপনি মনোযোগ দিয়ে কাজ করেন এই প্রফেশনাল ব্লগার ও ভালো মনো যোগদিয়ে কাজ শুরু করে দিন। প্রফোশনাল ব্লগার নিয়মিত তারা নিজেকে আপডেট রাখে প্রতিদিন নতুন নতুন আর্টেকাল লিখে নিজের ব্লগকে আপডেট রাখতে হবে।


ব্লগ কে ব্র্যান্ড বানানো:
একজন প্রফেশনাল ব্লগারদের প্রথম থেকেই এটিকে একটি ব্র্যান্ড বানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করতে হয়। কিভাবে ব্লগকে ব্যান্ড বানাবেন: ব্যান্ড বলতে আমরা কি বুঝি, গুগলডট কম একটা ব্যান্ড গুগলের কাজ কি গুগল হলো একটা সার্চ ইঞ্জিন কোন মানুষ যদি কোন কিছু লিখে গুগলে সার্চ করে তাহলে সাথে সাথে চলে আসে। ঠিক তেমনি এমন একটা ভালো নাম চয়েস করতে হবে যা মানুষের মনে থাকে এই নামটি যাতে আপনার ব্লগের পরিচয হয়ে দাঁড়ায়। তখনই আপনার ব্র্যান্ড হবে মানুষ যখন আপনার ব্লগকে জানবে তখনই আপনার ব্র্যান্ড হয়ে যাবে।


আর্টিকেল এর দিকে নজর:
আপনি যে বিষয়ের প্রতি লিখছেন সেই বিষয়ে সম্পূর্ণ বিস্তারিত ভাবেই লেখবেন। যাতে পাঠকরা আপনার লেখাথেকে উপকার হতে পারে। আপনি যে বিষয়ের আর্টিকেল লিখবেন আপনার ভিসিটররা সেই আর্টিকেল সব প্রশ্নর উওর পাই মতো।আপনার আর্টিকাল টি ভালো ভাবে বর্ণনা করার চেষ্টা করুন ১৫০০-২৫০০ এর ভিতওে আর্টিকেল টি লিখতে চেষ্টা করুন।


প্রতি সপ্তাহে ৩টা করে আর্টিকেল দিতে চেষ্টা করুন এাঁ একে ভারে সহজ কাজ নয় এবং একে বারে কঠিন কাজ ও নয় আপনি যদি এটাকে প্রফেশনাল ভাবে নেন তাহলে আপনাকে এই কাজটি করতে হবে।মনে রাখবেন আপনার ব্লগের রিগুলার আর্টিকেল পাবলিশ হয় মতো এই মাসে একটা পরের মাসের একটা আর্টিকেল পাবর্লিশ করেন তাহলে আপানার ব্লগের জন্য এটা খারপ করে দিবে এই কাজটি একে বারে ও করবেনা। যদি প্রতিনিয়িত আর্টিকেল পার্বলিশ না করলে ভিজিটররা আপনার ব্লগ আর আসবে না এটা মোটেও ভালো দিক না তাই নিয়মিত আর্টিকেল পার্বলিশ করতে হবে।

সময়: একজন প্রফেশনাল ব্লগার হওয়ার জন্য আপনার থেকে সময়ের মূল্য থাকতে হবে। প্রথম দিকে আপনার থেকে ৩ ঘন্টা মতো সময় দিয়ে কাজ করলে হবে। যখন আপনার ব্লগিং গুগলে রেংক করবে তখন আপনাকে বেশি সময় দিতে হবে মানে যেভাবে চাকরিতে আপনি সকাল থেকে বিকেলে একটি নিদিষ্ট সময় দেন ঠিক এই ভাবে আপনার ব্লগিং সময় দিতে হবে। দেখুন আমি আগেই বলেছি যে ,ব্লগিং করতে সময় দিতে হবে আপনি যদি এই ব্লগিং করে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে আপনার থেকে প্রচুর সময় দিতে হবে বাংলাদেশে অনেক ব্লগার আছে প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করতে ছে শুধুমাত্র ব্লগিং করে।তাই একজন প্রফেশনাল ব্লগার হতে আপনার কিছু অ্যাডভান্স রকমের কাজ করতে হবে।

SEO ( Search engine optimiza ) সম্পকে জানুন:

SEO যাকে Search engine optimization বলে বলা হয়, এই বিষয়ে আপনাদের জানাটা অধিক জরুরি। একজন সফল ব্লগার হওয়ার জন্য SEO ব্যাপারে সঠিক জ্ঞান আপনার রাখতেই হবে। এটার সম্মন্ধে ভালো ধারো না থাকলে ব্লগিং সফল হওয়া যায় না।

যদি আপনার ব্লগ সাইটি SEO করা থাকে তাহলে  Google  থেকে নিজের ব্লগের জন্য আপনারা ফ্রি এবং unlimited ট্রাফিক বা ভিসিটর্স পেয়ে যাবেন।

তাই, SEO এর মাধ্যমে আপনার নিজের ব্লগে লেখা আর্টিকেল গুলিকে অধিক পরিমানে Search engine friendly বানিয়ে, সেগুলি গুগল সার্চে ভালো করে rank করিয়ে দিতে পারি।

ফলে আমাদের ব্লগে, গুগল সার্চ থেকে অধিক ট্রাফিক বা ভিসিটর্স আসার সুযোগ হয়ে উঠবে।

তাই, আপনি যদি ব্লগিং কে পেশাগতভাবে নিয়ে প্রফেশনালি ফুল টাইম ক্যারিয়ার হিসেবে কাজ করতে চাচ্ছেন তাহলে SEO র ব্যাপারে প্রথমেই শিখুন।

মনে রাখবেন, সাধারণ SEO র জ্ঞান সবাইর কাছেই রয়েছে। একজন, প্রফেশনাল ব্লগার হিসেবে আপনার কাছে advanced SEO র নলেজ থাকাটাও অনেক জরুরি।

কিছু কথা: আপনারা দেখতেছেন সাধরনত ব্লগিং সময় দিতে হবে যদি না প্রফেশনাল ব্লগার হতে হলে সময় দিতে প্রথম দিকে সময় কম দিলে ও আপনার ব্লগ সাইট যখন গুগলে রেংক আসবে তখন প্রচুর ভিজিটর আপনার ব্লগ সাইটে প্রতি নিয়িত আশা যাওয়া করবে ভালো আর্টিকেল দিতে হবে প্রতি সপ্তাহে ২-৩ টি করে আর্টিকেল পার্বলিশ করতে হবে।

article bottom

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here