শিক্ষানবীশ আইনজীবি হাকিমুন নেছা বাপ্পির করোনায় স্ব-রচিত কবিতা

0
162

সিএনবিঃ
করোনা তুমি দৃষ্টিহীন       

“হাকিমুন নেছা বাপ্পি” 

আমি জানি তুমি অতি ক্ষুদ্র,আমি জানি তোমায় আমরা খালি চোখে দেখতে পাইনা, আবার আমি এও জানি তুমি খুবই ভয়াবহ।

কিন্তু জানো তোমার দুর্বলতা কি?তোমার দুর্বলতা,তুমি একেবারেই দৃষ্টিহীন!
তুমি যদি দৃষ্টিহীন না হতে, তবে নিশ্চয়ই পার পেতো না সমাজের বিবেকহীন মানুষগুলো,মনুষ্যত্বহীন মানুষগুলো, সর্বোপরি সকল কুলাঙ্গার বৃন্দরা।

তুমি যদি দৃষ্টিহীন না হতে তবে নিশ্চয়ই পার পেতো না রাষ্ট্রের সেইসকল কর্মচারীবৃন্দ যারা ব্যক্তিগত লেনদেন ছাড়া ফাইলে সই করতে জানেন না, যারা দেশের সম্পদ উজার করে দেশেবিদেশে কাড়িকাড়ি সম্পদ গচ্ছিত রেখেছেন, যারা অর্থের বিনিময়ে দলীয় পদ পদবী দিয়ে পশুরুপি মানুষদেরকে আপামর জনতার জনপ্রতিনিধি বানিয়েছেন।

তুমি যদি দৃষ্টিহীন না হতে তবে নিশ্চয়ই পার পেতো না অসহায় মানুষের জন্য বরাদ্দকৃত কম্বল থেকে শুরু করে সয়াবিন তেল চোরেরা। পার পেতো না ক্যাসিনো রাজ্যের রাজাধিরাজরা,পার পেতো না পাঁচতারা হোটেলে গোপনে যাতায়াত করা স্বনামধন্য ব্যক্তিরা।

তুমি দৃষ্টিহীন বলেই বাছবিচার করতে জানো না। যাকে  কাছে পাও তাকেই ধরো। যারা দিনমজুর,যারা গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি সহ সকল কলকারখানায় কাজ করেন,যারা প্রাত্যহিক খাদ্যের জন্য কর্ম করতেই হয়, যারা সৎ কর্মচারী কিংবা জনপ্রতিনিধি যাদের মানব সেবায় কর্মস্থলে যেতেই হয় তুমি শুধু তাদেরই বেশি বেশি করে পেলে!

তুমি অসহায় মানুষ,তুমি রক্ত ঘাম ঝরানো মানুষ, তুমি দেশপ্রেমিক মানুষদের  চিনতে পারো না!
তুমি যদি দৃষ্টিহীন না হতে,আর কেউ তোমাকে স্বাগত  জানাক কিংবা নাই জানাক আমি জানতাম।তাই বলি,করোনা তুমি যদি দৃষ্টিহীন না হতে।

article bottom

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here