মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সর্বোচ্চ ত্যাগের উৎসব ঈদুল আযহা পালিত

0
59

মোজাম্মেল হক, সিএনবি কক্সবাজার প্রতিনিধি:  মুসলমানদের সর্বোচ্চ ত্যাগের এবং খুশির উৎসব পবিত্র ঈদুল আযহা দেশ ব্যাপী পালিত।সারা দেশে এক যোগে সকল মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা পবিত্র ঈদুল আযহার নামাযের জামাত শেষে পছন্দের কুরবানীর পশুটি জবাইয়ের মাধ্যমে ঈদুল আযহা পালন করেছেন।

হযরত ইব্রাহীম (আঃ) এর সর্বোচ্চ আদরের সন্তান হযরত ইসমাইল (আঃ) কে কুরবানীর হুকুম করার পর বাবা ইব্রাহিম ( আঃ)যখন সন্তানের মায়া ত্যাগ করে নিজের আদরের সন্তানকে কুরবানী দিতে প্রস্তুত হয়ে যান তখনই আল্লাহ্ তার উম্মতদের উপর এই কুরবানী ওয়াজিব করে দেন।এবং এই পৃথিবী যত দিন বাঁচবে ততদিন এই কুরবানীর চিলচিলা চলতে থাকবে।

পবিত্র কোরআন ও হাদিসে স্পষ্ট লিখা আছে যে আল্লাহ্ এক এবং মুহাম্মদ (সঃ) কে আল্লাহ্ নবী ও রাসূল মানেন তার আর্থিকভাবে সামর্থ্যবান হলেই পশু কোরবানি করাই উত্তম ইবাদত বলে ধর্মীয়ভাবে বলা হয়েছে। জিলহজ মাসের ১০ তারিখে ঈদুল আজহা উদ্‌যাপিত হলেও পরের দুই দিন, অর্থাৎ ১১ ও ১২ জিলহজেও পশু কোরবানি করার বিধান আছে।

এদিকে সারা দেশে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম সহ মোট পাঁচটি বড় জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম জামাত হয়েছে সকাল সাতটায়, দ্বিতীয় জামাত সকাল আটটায়, তৃতীয় জামাত সকাল নয়টায়, চতুর্থ জামাত সকাল ১০টায় এবং পঞ্চম ও শেষ জামাত সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকালের গোসল শেষে বন্ধু – বান্ধব,আত্নীয় – স্বজনদের সাথে মসজিদে গিয়ে ঈমামের পেছনে খুতবা সহকারে ঈদুল আযহার নামাজ শেষে অনেকেই যান কবরস্থানে স্বজনের কবর জিয়ারত করতে। চিরকালের জন্য চলে যাওয়া স্বজনের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে আল্লাহর দরবারে মোনাজাত করেন তাঁরা। বাড়ি ফিরে আল্লাহ তাআলার উদ্দেশে পশু কোরবানি করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here