মহেশখালী হোয়ানক মৌলভী ঘোনায় ১ শ্রমিককে শ্বাসরোধ করে হত্যা, আটক-১

0
114

সিএনবি, ডেস্ক নিউজঃ  হোয়ানক ইউনিয়নের হেতালিয়া মৌজার মৌলভী ঘোনায় ১ শ্রমিককে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে অপরাপর শ্রমিকেরা আটক-১ জন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ৬ নভেম্বর সকাল ৭টার দিকে হেতালিয়া মৌজার মৌলভী ঘোনায় কাকঁড়া সংগ্রহকারী নুরুল ইসলাম (৩১) কে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে অপর কাকঁড়া সংগ্রহকারী ফারুক, কলিম উল্লাহ ও সাদ্দাম হোছেন। তথ্যনিয়ে জানাগেছে, ৪জন কাকঁড়া সংগ্রহকারী (মোস্তাক আহমদের পুত্র নুরুল ইসলাম, আব্বাস মিয়ার পুত্র কলিম উল্লাহ, গোলাম মিয়ার পুত্র ফারুক ও আব্দুল মোনাফের পুত্র (ধৃত)সাদ্দাম হোসেন) ৩দিন ধরে কাকঁড়া সংগ্রহ করতে গিয়েছিল।

৬ নভেম্বর সকাল ৭টার দিকে নুরুল ইসলামের সাথে ফারুক, কলিম উল্লাহ ও সাদ্দাম হোছনের সাথে কাকঁড়ার বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডা হয় একপর্য্যায়ে ৩জন মিলে নুরুল ইসলামকে গোপনাঙ্গ (কুসুম) চিপে ধরে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করার পর হত্যাকারী ৩ জন মিলে নিহত নুরুল ইসলামের বাড়িতে এনে ষ্টোক করেছে মর্মে তার আত্নীয় স্বজনকে বলে। তখন তার আত্নীয় স্বজন দ্রুত মহেশখালী হাসপাতালে আনে কর্তব্যরত চিকিৎসক নুরুল ইসলামকে মৃত ঘোষনা করার পর তার আত্নীয় স্বজন নুরুল ইসলাম এর বাড়ি হোয়ানক কালালিয়া কাটাঁ নিয়ে যাই। নুরুল ইসলামের আত্নীয়স্বজনের সন্দেহ সৃষ্ঠি হলে সাদ্দাম হোসেনকে ধরে রাখে। তখন আটককৃত সাদ্দাম হোসনের স্বীকারোক্তি মতে, নুরুল ইসলামকে ব্যক্তিগত কথা কাটাঁকাটির একপর্য্যায়ে শ্বাসরোধ ও গোপনাঙ্গ চিপে ধরে হত্যা করেছে ফারুক ও কলিম উল্লাহ। ঘটনাটি আচঁ করতে পেরে হত্যাকারী ফারুক ও কলিম উল্লাহ পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। ঘটনার সংবাদ পেয়ে দ্রুত গতিতে ঘটনাস্থলে

মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর ও তদন্ত ওসি বাবুল আজাদ ও সেকেন্ড অফিসার ছানা উল্লাহ এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ গিয়ে ঘটনা তদন্ত করে সুরত হাল করেন। সুরত হালে কোন হতের চিহ্ন পাওয়া যাইনি। এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান, ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থ ও নিহতের বাড়ি গিয়ে তদন্ত করেছি। কেহ দোষী প্রমানিত দ্রুত গতিতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here