মহেশখালীতে গর্জন বাগান নষ্ট ও পাহাড়ী পান বরজ করে বনভূমি দখল করে আসছিল এক শ্রেণির ভূমি দস্যুরা।

0
81

সিএনবি ডেস্ক: চট্টগ্রাম উপকূলীয় বন বিভাগ চট্টগ্রামের আওতাধীন মহেশখালী উপজেলা রেঞ্চের শাপলাপুর বন বিটের বারিয়ার ছড়ি ১২ নং পাহাড়ি মৌজার ১৯৯৬ সনের গর্জন বাগান নষ্ট ও পাহাড়ী পান বরজ করে বনভূমি দখল করে আসছিল এক শ্রেণির ভূমি দস্যুরা। 

উক্ত বন ভূমি দখল মুক্ত করার জন্য চট্টগ্রাম বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ও মহেশখালী রেঞ্জের এসিএফ মোঃ মারুফের নির্দেশে শাপলাপুর বিট কর্মকর্তা শামশুল হক সরকার, মুদির ছড়া বিট কর্মকর্তা অঞ্জন কান্তি বিশ্বাস, দিনাজপুর বিট কর্মকর্তা অভিজিৎ বড়ুয়া ও শাপলাপুর বিটের বন প্রহরী আহসানুল কবিরের নেতৃত্বে একদল বনকর্মীরা অভিযান চালিয়ে একটি অবৈধ দখল উচ্ছেদ করেছে। 

এ সময় সরকারী এক একর জমি উদ্ধার করা হয়। এ অভিযানটি চালিয়েছে শাপলাপুর বারিয়ার ছড়ির পশ্চিম পাশের পাহাড়ী এলাকায়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। 

জানাগেছে, বন কর্মকর্তারা এ উচ্ছেদ অভিযানটি পরিচালনা করার সময় স্থানিয়  বারিয়ার ছড়ি পাহাড়ী গ্রামের জমির অবৈধ দখলদার ভূমিদস্যু আব্দুল করিমের পুত্র আকতারোজ্জামান ও তার পুত্র সাজেদুল করিম এতে বনকর্মীদের বাঁধা দিতে লাঠিয়াল বাহিনী নিয়ে ধাওয়া করে।  ফলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটলে এক পর্যায়ে বনকর্মীরা নিজেদের আত্মরক্ষার্থে ৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। ফলে ভূমিদস্যুরা পিছু হটে পালিয়ে যায়।
শাপলাপুর বনবিট কর্মকর্তা শামসুল হক সরকার বলেন, মহেশখালীর শাপলাপুর পাহাড়ে সৃজিত গর্জন বাগান কেটে এক শ্রেণীর ভূমিদস্যুরা পাহাড়ি জায়গা দখলে নিয়ে পান বরজসহ বেচা-বিক্রি করে আসছিল। সরকারী জমি রক্ষার জন্য মুলত এ উচ্ছেদ অভিযান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here