নতুন ট্রাফিক আইনে বেড়েছে দৌড়ঝাঁপ, ব্যাংকে বেড়েছে চাপ

0
69

মোজাম্মেল হক, কক্সবাজার সদরঃ
সারা বাংলাদেশের নতুন ট্রাফিক আইন নিয়ে বেড়েছে সতর্কতা আর সংশোধনী। ড্রাইভিং লাইসেন্স, গাড়ির লাইসেন্স, মাথায় হেলমেট ইত্যাদি ট্রাফিক আইনে এসেছে নতুন পরিবর্তন। সব কিছুতেই বেড়েছে জরিমানা ও জেল দ্বিগুণ থেকে তিন গুণ। 
ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং গাড়ির লাইসেন্স করতে প্রেসার পড়েছে সকল সরকারি ব্যাংক গুলোতে। গ্রহকদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে ব্যাংক কর্মকর্তা কর্মচারীরা সৃষ্টি হচ্ছে নানান বিশৃঙ্খলা। সকাল থেকে লাইনে দাড়িয়ে টাকা জমা দিতে সময় লাগছে ৩ থেকে ৪ ঘন্টা। এতে দারুণ বিরক্তবোধ করছে লাইসেন্স করতে আসা সকল গাড়ির মালিক থেকে শুরু করে কর্মকর্তা কর্মচারীরা।              

ট্রাফিক আইনে পরিবর্তন আসার কারণে লাইন্সেস বিহীন সকল যানবাহন, ট্রাক,বাস,মোটর সাইকেল সহ সকল চালকের দৌড় ঝাপ বেড়েছে। কারণ ড্রাইভিং লাইসেন্স বিহীন কোন চালক কিংবা লাইসেন্স বিহীন গাড়ি রাস্তায় নামার সাথে সাথে জরিমানা সহ জেলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ফলে সকল গাড়ির মালিক ও ড্রাইভার গুলো লাইসেন্স করার জন্য বিআরটিসি অফিস এবং ব্যাংক গুলোতে ভিড় জমিয়েছে। 
সরকারের এই ট্রাফিক আইনে বিপাকে পড়েছে লাইসেন্স বিহীন গাড়ি ও লাইসেন্স বিহীন গাড়ির চালকগণ। বিভিন্ন সুত্রে জানা যায় শহরের রাস্তা গুলোতে এখন লাইসেন্স বিহীন গাড়ির তেমন ভিড় নেই এবং লাইসেন্স ছাড়া কোন চালাক আর গাড়ি চালানোর সাহস পাচ্ছে না ফলে সরকারি, বেসরকারি থেকে শুরু করে সকল স্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীদের লাইসেন্স করার জন্য জোর প্রেসার দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তারা। 

এই দিকে সরকারের এই আইনে সন্তোষ্ট প্রকাশ করেছেন সাধারণ জনগণ। বিভিন্ন জায়গায় সাধারণ জনগণের সাথে কথা বলে জানা গেছে- সরকারের এই আইনে তারা অত্যান্ত সন্তোষ্ট । কারণ এই নতুন আইন পাশ হওয়ার পর থেকে দেখা মিলছে না লাইসেন্স বিহীন,ফিটনেস বিহীন গাড়ি এবং লাইসেন্স বিহীন কোন গাড়ির ড্রাইভার ও অথথা ভিড় জমাচ্ছে না শহরের রাস্তা গুলোতে ফলে সহজেই কোন জ্যাম ছাড়া রাস্তায় চলাচল করতে সক্ষম হচ্ছে তারা।                                    

ট্রাফিক আইনের নতুন নিয়মঃ  

১। লাইসেন্স বিহীন গাড়ি চালালে সর্বোচ্চ ২৫০০০ হাজার টাকা অথবা ৬ মাস জেল। 

২। ভুয়া লাইসেন্সে গাড়ি চালালে সর্বোচ্চ ১ থেকে ৫ লক্ষ টাকা অথবা ৬ মাস থেকে ২ বছরের জেল।

৩। রেজিষ্ট্রেশন বিহীন গাড়ি চালালে সর্বোচ্চ ৫০০০০ (পঞ্চাশ হাজার) বা ৬ মাস জেল। 

৪। ফিটনেসবিহীন গাড়ি চালালে সর্বোচ্চ ২৫০০০ ( পঁচিশ হাজার টাকা) ৬ মাস জেল। 

৫। ট্রাফিক সংকেত অমান্য করলে সর্বোচ্চ ১০০০০ ( দশ হাজার টাকা) জরিমানা। 

৬। অতিরিক্ত গতিতে চালালে সর্বোচ্চ ১০০০০ (দশ হাজার টাকা) জরিমানা। 

৭। অবৈধ পার্কিং সর্বোচ্চ ৫০০০(পাঁচ হাজার টাকা) জরিমানা। 

৮। উল্টো পথে চালালে সর্বোচ্চ ১০০০০ (দশ হাজার টাকা)  জরিমানা। 

৯। হেলমেট না থাকলে সর্বোচ্চ ১০০০০( দশ হাজার টাকা)  জরিমানা। 

১০। যত্রতত্র রাস্তা পারাপার করলে সর্বোচ্চ ১০০০০ ( দশ হাজার টাকা) জরিমানা। 

১১। সিটবেল্ট না বাঁধলে সর্বোচ্চ ৫০০০(পাঁচ হাজার টাকা) জরিমানা। 

১২। চালক ফোনে কথা বললে সর্বোচ্চ ৫০০০ (পাঁচ হাজার টাকা) জরিমানা। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here