দেশে চলছে ভানুমতির খেল: রিজভী

0
52

সিএনবি ডেস্ক: দেশে ভানুমতির খেল চলছে মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকার এখন নানা তেলেসমাতি দেখানোর চেষ্টা করছে। চেষ্টা করছে জনগণকে ধোকা দেয়ার। ‘দুর্নীতিবাজরা গণভবনে আসতে পারবে না’ প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় এ কথা বলেন তিনি।

রোববার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে দলের মুখপাত্র রিজভী বলেন আপনারা সম্প্রতি দেশের পত্রপত্রিকায় একটি শিরোনাম দেখেছেন। নিশিরাতের সরকারের প্রধানমন্ত্রী যুবলীগের নেতাদের উদ্দেশ্য করে বলছেন, ‘দুর্নীতিবাজরা গণভবনে আসতে পারবে না’। এই কথাটি জনমনে হাসি-তামাশার উদ্রেক করেছে। কারণ কে কাকে দুর্নীতিবাজ বলছে? অপ্রিয় হলেও সত্য, খোদ গণভবনই এখন দুর্নীতিবাজদের নিয়ন্ত্রণে। রাতের আধারে জনগণের ভোট ডাকাতি করে ভোটাধিকার হরণ কি বড় দুর্নীতি নয়?

৩০ ডিসেম্বরের ভোটের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ২০১৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর মধ্যরাতে জনগণের ভোট ডাকাতি করে রাতের গর্ভে যেই সরকারের জন্ম দেয়া হয়েছে, বাংলাদেশের ইতিহাসে এতবড়ো দুর্নীতি, এত বড় কলঙ্ক, জনগণের ভোট নিয়ে এতো বড়ো জুয়া খেলা অতীতে আর কখনোই ঘটেনি। নির্বাচনের নামে ২০১৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর মধ্যরাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের দিয়ে জনগণের ভোট কেটে নেয়া, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ভোট ডাকাতিকেও হার মানিয়েছে। সেই ভোট ডাকাতদের নিয়ন্ত্রণে এখন গণভবন। সেই গণভবনে বসে যখন বলা হয় ‘দুর্নীতিবাজরা গণভবনে আসতে পারবেনা’ তখন এটা জনগণের কাছে পরিহাসের মতোই শোনায়।

ক্ষমতাসীন দলের বিভিন্ন নেতাদের বিরুদ্ধে উঠা দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, জনগণের টাকা যার সিঁধ কেটে বিদেশে পাচার করে সেকেন্ড হোম ও বেগম পল্লী বানাচ্ছে তাদের আবার বড় গলা। গণভবন যদি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের হাতে থাকে তাহলেই কেবলমাত্র দুর্নীতিবাজদের কবল থেকে গণভবন মুক্ত হবে এবং সারাদেশের দুর্নীতিবাজরা জবাবদিহির আওতায় আসবে। সূত্র: যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here