টেকনাফ এর হোয়াইক্যাং ২ মাদক ব্যাবসায়ি বন্দুক যুদ্দে নিহত

0
117

জিয়াউদ্দিন জিকো:সিএনবি প্রতিনিধি টেকনাফ: 
কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সাথে গুলাগুলির ঘটনা দুই মাদক কারবারী নিহত হয়েছে। উক্ত ঘটনায় সহকারী পুলিশ সুপারসহ অন্তত ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) ভোররাতে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের সাতঘরিয়াপাড়া সংলগ্ন পাহাড়ী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন একই ইউনিয়নের কান্জর পাড়ার সামশুল আলমের পুত্র জিয়াবুল হক উরফে বাবুল (৩০) ও বাহারছড়া ইউনিয়নের শীলখালীর কেফায়েত উল্লাহর পুত্র আজিম উল্লাহ (৪৬)। উদ্ধার করা হয়েছে ইয়াবা ও অস্ত্র।টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ, নিহতরা মাদক কারবারী ও পলাতক আসামী বলে দাবী করেন।

তিনি জানান, ১৬ অক্টোবর বুধবার বিকালে উপজেলার হ্নীলা বাজার এলাকা থেকে বেশ ক’টি মামলার ফেরারী আসামী জিয়াবুল হক উরফে বাবুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে বৃহস্পতিবার ভোররাত এসপি সার্কেল (উখিয়া-টেকনাফ) নিহাদ আদনান তাইয়ানসহ টেকনাফ মডেল থানার পুলিশের একটি দল হোয়াইক্যং ইউনিয়ন সাতঘরিয়াপাড়া সংলগ্ন পাহাড়ী এলাকায় অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আটক আসামীর সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ী গুলিবর্ষণ করে আসামীদের ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এতে এএসপি সার্কেল নিহাদ আদনান তাইয়ান, উপ-পরিদর্শক সাব্বির আহমেদ, কনেস্টবল রাইসুল ইসলাম আসাদ ও শুক্কুর আহত হয়। জবাবে পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়লে দুষ্কৃতকারীরা পিছুহটে।

পরবর্তীতে পরিস্থতি স্বাভাবিক হলে ঘটনা স্থল থেকে গুলিবিদ্ধ বাবুল ও তার সহযোগী আজিম উল্লাহকে উদ্ধার কর টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে তারা মারাযান।ওসি আরো জানান, ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ১টি ওয়ান শুটার গান, ৫টি এলজি, ৩৬ রাউন্ড গুলি এবং ৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় পৃথক মামলার প্রস্তুতি চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here