জ্যাম শহরে পরিণত খরুশকুল রাস্তার মাথা

0
81

মোজাম্মেল হক,সিএনবি:  কক্সবাজার পৌরসভার শহরের খুরুশকুল রাস্তার মাথা এখন জ্যাম নগরে পরিণত হয়েছে। লাগামহীন ভোগান্তীতে শহরের সাধারণ মানুষ ও যাত্রীরা। কোন কাজেই সময় মত পৌঁছাতে সক্ষম হচ্ছে না সাধারণ যাত্রীরা। তিব্র হতে তিব্র সংকটে আছেন এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করা যাত্রীরা।  

কক্সবাজার শহরের তারাবনিয়ার ছড়া হতে শুরু করে হাশেমিয়া কামিল মাদ্রাসা হতে আলীর জাহাল পর্যন্ত প্রতিনিয়ত টমটম এবং নানান ধরণের যানবাহনের বেপরোয়া গাড়ি চালানোর ফলে সৃষ্টি হচ্ছে অস্বাভাবিক জ্যাম। ৫ মিনিটের যাত্রায় সময় লাগছে ১ ঘন্টা বা তাঁর ও বেশি।   

বৃষ্টির পানিতে রাস্তা ভাঙ্গা এবং প্রয়োজনের তুলনায় বেশি গাড়ি এবং রাস্তার আশপাশের ফুটপাত গুলো স্বাভাবিক না থাকায় গাড়ি গুলো সঠিক ভাবে চলাফেরা করতে সক্ষম হচ্ছে না। ফলে গাড়ির ড্রাইভার গুলো তাদের নিজস্ব গতিতে গাড়ি চালাতে পারছে না আর এতে সৃষ্টি হচ্ছে মারাত্নক জ্যাম।  

কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা গুলোর মধ্যে এই রাস্তা টা একটি যে রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ গাড়ি যোগে বা পায়ে হেঁটে চলাচল করে যাতে রয়েছে স্কুল, কলেজ, অফিস, আদালতের হাজার হাজার যাত্রী। অথচ এই রাস্তার অবস্থাএতই বেহাল দশা যে কোন মতে গন্তব্যে স্থলে পৌঁছাতে পারলেই প্রাণ বাঁচে। বাস টার্মিনাল হতে হলিউডের মোড়ে যেতে মাঝে মধ্যে সময় লাগে দেড় থেকে দুই ঘন্টা। যেখানে স্বাভাবিক ভাবে সময় লাগার কথা ১৫ থেকে ২০ মিনিট বা তারও কম। 

স্বাভাবিক মানুষ চলাচলের তো সমস্যা হচ্ছেই তার উপরে কোন ইমার্জেন্সি রোগীও যদি হাসপাতালে নিতে হয় তাকেও রাস্তার এই জ্যাম নগরে সময় কাটিয়ে তারপর যেতে হয় যদি এতে রোগী তিব্র থেকে তিব্র অসুস্থ হলেও কোন উপায় নেই। কোন সু ব্যবস্থা নেই যে একজন ইমাজেন্সি রোগী দ্রুত হাসপাতালে প্রেরণ করা যাবে। 

কক্সবাজার বাসীর এই ভোগান্তীর শেষ কখন হবে। কক্সবাজার পৌরসভার মাননীয় মেয়র মহোদয়ের সু দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে কক্সবাজার বাসী। অতি দ্রুত আপনি এই যাতায়তের একটি সু ব্যবস্থা করে দিলে কক্সবাজারে বসবাসরত জনগণ আপনার প্রতি চিরকৃতজ্ঞ থাকবে।   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here