কক্সবাজার প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে এড. লিনার মতবিনিময়

0
87

হুমায়ুন কবির হিমু, কক্সবাজার সদরঃ কক্সবাজার প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এড. নাসরিন ছিদ্দিকা লিনা। এসময় তিনি বলেন, কক্সবাজারের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট যেকোন বিষয়ে কক্সবাজারের সাধারণ মানুষের পাশে থাকবেন। চেষ্টা করবেন নিজেকে কক্সবাজারের স্বার্থে নিয়োজিত রাখার। ইতোমধ্যে এড. লিনা কক্সবাজারে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকা জন্মনিবন্ধন চালুর জন্য হাইকোর্টে রিট করেছেন। দুর্ভোগ নিয়ে আদালতে রিট করায় কক্সবাজারের মানুষ এড. লিনাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রেসক্লাবে পৌঁছলে সাংবাদিকরা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন-কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, সিনিয়র সাংবাদিক প্রিয়তোষ পাল পিন্টু, প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মমতাজ উদ্দিন বাহারী, প্রেসক্লাবের অর্থ সম্পাদক, দৈনিক কক্সবাজারের পরিচালনা সম্পাদক ও বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য মোহাম্মদ মুজিবুল ইসলাম, সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজারের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক হিমছড়ি সম্পাদক হাসানুর রশিদ, এনটিভি’র কক্সবাজার প্রতিনিধি ইকরাম চৌধুরী টিপু, সকালের কক্সবাজারের সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল, দেশবিদেশ এর সম্পাদক আয়ুবুল ইসলাম, দৈনিক সৈকত এর বার্তা প্রধান আনছার হোসেন, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর এর জেলা প্রতিনিধি নুপা আলম, সকালের কক্সবাজারের বার্তা সম্পাদক রাশেদুল মজিদ, বিডিনিউজের শংকর বড়ুয়া রুমি, একুশে টিভির আবদুল আজিজ, দৈনিক আপনকন্ঠের বার্তা সম্পাদক আজিজ রাসেল, হিমছড়ির চীফ রিপোর্টার ছৈয়দ আলম, দৈনিক সাঙ্গুর কক্সবাজার প্রতিনিধি ইমাম খাইর, দৈনন্দিনের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শফিউল আলম, দৈনিক কক্সবাজার’র স্টাফ রিপোর্টার আজিম নিহাদ, কক্সবাজার প্রতিদিন’র স্টাফ রিপোর্টার মিজানুর রহমান ও দৈনিক হিমছড়ির স্টাফ রিপোর্টার তারেকুর রহমান প্রমুখ।

প্রসঙ্গত ৫ নভেম্বর কক্সবাজার জেলার চারটি পৌরসভা ও ৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় জন্মনিবন্ধন প্রক্রিয়া পুনরায় শুরু করতে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন হাইকোর্ট। এই এলাকাগুলোয় জন্মনিবন্ধন কার্যক্রম পুনরায় চালু করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার সচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, নির্বাচন কমিশন, রেজিস্ট্রার জেনারেল (জন্ম ও মৃত্যু), চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার ও কক্সবাজারের জেলা প্রশাসককে চার সপ্তাহের মধ্যে ওই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। কক্সবাজারের বাসিন্দা ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী নাসরিন ছিদ্দিকা লিনার করা এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গত মঙ্গলবার ( ৫ নভেম্বর ) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। এ বছরের ৮মে দৈনিক কক্সবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত ‘২০ মাস ধরে বন্ধ জন্ম নিবন্ধন’ শীর্ষক প্রতিবেদন যুক্ত করে গত ২৯ অক্টোবর ওই রিটটি করেন এডভোকেট লিনা । যার নম্বর ১১৩৫১/২০১৯। রিটে জন্মনিবন্ধন প্রক্রিয়া পুনরায় চালুর নির্দেশনা চাওয়া হয়। আইনজীবী নাসরিন ছিদ্দিকা লিনা কক্সবাজার পৌরসভার রুমালিয়ারছড়ার বাসিন্দা। তিনি কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ আয়কর আইনজীবী ছৈয়দুল হকের কন্যা এবং বর্তমানে কেন্দ্রিয় আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য। লিনা ঢাকার আইন অঙ্গনে অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ। তাঁর স্বামী ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান লিখন। ২০০৪ সালে তিনি ঢাকায় আইনজীবী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেছেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এডভোকেট সাহারা খাতুনের অধীনে। এখনও তাঁর অধীনেই কাজ করছেন। বিগত দীর্ঘ সময় ধরে দলীয় নেতাকর্মীদের হয়ে তিনি অসংখ্য মামলায় লড়েছেন বিনা পারিশ্রমিকে। তাঁর করা কয়েকটি মামলা আলোড়ন তুলেছে দেশব্যাপী। যে রীটের প্রেক্ষিতে দেশের সর্বোচ্চ আদালত লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচারে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, সেই রীটের পিটিশনার ছিলেন নাসরিন ছিদ্দিকা লিনা। নিকট অতীতেও মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে বঙ্গবন্ধু এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কে কোন বিষয় ছিলনা। তখন জামায়াত-শিবির মাদ্রাসাগুলো ব্যবহার করতো বলে অভিযোগ রয়েছে। এ অবস্থায় ২০১৪ সালে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে বঙ্গবন্ধু এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কে বিষয় রাখার নির্দেশনা চেয়ে আদালতে রীট করেন লিনা। পরে আওয়ামী লীগ সরকার মাদ্রাসার সিলেবাসে ওই বিষয় অন্তর্ভুক্ত করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here