কক্সবাজার জেলা ছাত্রীলীগের আইকন,আগামীর ভবিষ্যত,মারুফ ইবনে হোসাইন

0
337

সিএনবি অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কক্সবাজার জেলা উজ্জল নক্ষত্র, ছাত্রলীগের আইকন, জেলা ছাত্রলীগের আগামীর ভবিষ্যত, মারুফ ইবনে হোসাইন আগামী ২০ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার জেলা ছাত্রলাগীর কাউন্সিলের সভাপতি হওয়ার আলোচনায় শীর্ষে আছেন। তিনি একজন আদর্শবান রাজনীতিবিদ।

# বিনামূল্য র্ফি চিকিৎসা প্রধানের কার্ড বিতরণ করেন মারুফ ইবনে হোছেন:

বিনামূল্য র্ফি চিকিৎসা প্রধানের কার্ড বিতরণ করেন মারুফ ইবনে হোছেন

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী,বাংলা জাতির জনক,যিনি আজ বাংলার বঙ্গবন্ধু থেকে বিশ্ব দরবারে বিশ্ববন্ধুতে ভূষিত হয়েছেন,সেই বিশ্ববন্ধুর ৪৪ তম শাহাদাত বার্ষিকীকে কেন্দ্র করে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমে বিনামূল্যে চিকিৎসা দানের লক্ষ্যে কিছু অসহায় মানুষদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দানের কার্ড প্রদানকালে।
জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনের স্বার্থকতা ছিল,তিনি তার জীবনের অন্তিমকালেও বাঙ্গালীর স্বার্থকতা নিয়ে লড়েছিলেন। বাংলার হত দরিদ্র, অসহায় মানুষদের জন্য তার দুয়ার সব সময়ই খোলা ছিল।তিনি করেও গেছেন,লড়েও গেছেন এই বাঙ্গালীর জন্য। আর সেই মুজিবের আদর্শকে বুকে ধারণ করে দরিদ্র, অসহায় মানুষদের পাশে থাকতে পারার স্বার্থকতাটাই অনন্য

# স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি,হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী ও ‘জাতীয় শোক দিবস’। শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মারুফ ইবনে হোছেন।

শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী ও ‘জাতীয় শোক দিবস’। শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মারুফ ইবনে হোসাইন

শুক্রবার ১৫ আগস্ট ’৭৫ সাল। ফজরের আযান শুরু হয়েছে মাত্র। রাতের অন্ধকারের শেষ রেশ টুকু ফিকে হয়ে আসতে শুরু করেছে। সেই কালো রাতে ঘাতকের দল এগিয়ে এলো ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকান্ড ঘটাবার জন্যে। আজ সেই অভিশপ্ত শোকাবহ রক্তাক্ত ১৫ আগস্ট। স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি,হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী ও ‘জাতীয় শোক দিবস’।
পৃথিবীর ইতিহাসে জঘন্যতম ও বর্বরোচিত এই হত্যাকান্ডে ঘাতকচক্র একই রাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবসহ তার পরিবারের ১৬ জন সদস্যকে নির্মমভাবে হত্যা করার মধ্য দিয়ে বাঙালির স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের বিপরীত দিকে প্রবাহিত করার কাজ শুরু হয়। বঙ্গবন্ধু হত্যার বদলা নিতে হলে তার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকদের নতুন করে শপথ নিতে হবে। নূতন প্রত্যয়ে বলীয়ান হয়ে শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে বাংলার দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে এবং বঙ্গবন্ধুর কাংখিত অর্থনৈতিক মুক্তি এনে দিতে পারলেই জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর বিদেহী আত্মা শান্তি পাবে। বাংলার মানুষ জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর হত্যার রায়ের পরিপূর্ণ বাস্তবায়ন চায়। আর তা-ই হবে তার প্রতি কৃতজ্ঞ জাতির সর্বোৎকৃষ্ট সম্মান প্রদর্শন। ১৫ আগস্ট ’৭৫ এর কালোরাতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতাসহ নির্মমভাবে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও জান্নাত কামনা করছি। জয় বাংলা – জয় বঙ্গবন্ধু।

# কক্সবাজার সদর উপজেলা চেয়ারম্যন নির্বাচিত হওয়া জুয়েল ভাইয়ের সাথে আবেগ প্রলোবন হয়ে যান মারুফ ইবনে হোসাইন।

আবেগ ময় মারুফ ইবনে হোসাইন

মারুফ ইবনে হোসাইন একজন সাদা মনের মানুষ সেটা তার আবেগ পূর্ণ ছবি দেখলে বুঝা যায়। সুদু তারেই সাজে কক্সবাজর জেলার নেতৃত্ব দেওয়ার। মারুফ ইবনে হোছেনকে যদি কক্সবাজার জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি হিসেবে পাই তাহলে জেলা ছাত্ররাজনীতির ভবিষ্যত উজ্জল হবে বলে মনে করেন কক্সবাজার জেলার মানুষ।

# সুযোগ্য বাবার সুযোগ্য সন্তান মারুফ ইবনে হোসাইন ।

মারুফ ইবনে হোছেন ও তার শ্রদ্ধেয় পিতা আলহাজ্ব মোহাম্মদ হোসাইন

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী, #শেখ_হাসিনা‘র পাশে_
দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত রাজনৈতিক বিশ্বস্ত সহচর, জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও দৈনিক
আপন-কণ্ঠের সম্পাদক পেকুয়া উপজেলারই কৃতি সন্তান জনাব,
#আলহাজ্ব_মোহাম্মদ_হোসাইন (বি.এ) কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের ভূমিকা অপরসিম । তার জীবনে সর্ব শেষটা এই রাজনীতির পিছনে ব্যয় করেছন। তাদের অবদান আজ কক্সবাজার বাসী যেমন অস্বীকার করতে পারেনা ঠিক তেমনি তার সন্তান মারুফ ইবনে হোছেনর অবদান অস্বীকার করতে পারেনা কক্সবাজার জেলা ছাত্র রাজনীতিবিদরা। সুযোগ্য বাবার সুযোগ্য সন্তান হচ্ছেন মারুফ ইবনে হোছেন। আগামী ২০ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের কাউন্সিলে মারুফ ইবনে হোছেনকে সভাপতি হিসেবে দেখতে চাই জেলা প্রবীণ রাজনীতিবিদরা।

# রাজপথে মারুফ ইবনে হোসাইনের ভূমিকা:

রাজপথে মারুফ ইবনে হোসাইন

কক্সবাজার জেলা রাজপথের মারুফ ইবনে হোসাইনের ভুমিকা মিছিল দেখলে বুঝা যায় তা কত অবদান কক্সবাজার জেলা ছাত্ররাজনীতির। মারুফের মত ত্যাগি নেতা আজ বাংলাদেশের খুব অভাব। তার ত্যাগের মহিমায় কক্সবাজার জেলা সভাপতি হওয়ার যোগত্য শুধূ তারই আছে। কক্সবাজার জেলা আনাচে কানাছে শুনা যাচ্ছে মারুফ ইবনে হোসাইন কে সভাপতি হিসেবে চাই। তার মত সাদা মনের মানুষকে যদি আমরা জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি হিসেবে পাই তাহলে আমাদের আশা পূরণ হবে বলে মনে করেন জেলা ছাত্র সমাজ। তাকে নিয়ে অনেক আশা ব্যক্ত করেন রাজপথের তরুণ ছাত্র ছাত্রী। তার যোগ্যতায় প্রমান করেন সভাপতি হওয়ার যোগ্যতা রাখে। তার মত সাহসী, ত্যাগী নেতা আছে বলে আজকে ছাত্র রাজপথ এত শক্তিশালী হয়ে আছেন। মারুফ ইবনে হোসাইনের মত যোগ্য নেতা হারিয়ে গেলে বুঝা যাবে ছাত্র রাজনীতি কত দূর্বল হয়ে পড়বে। তাই আগামী ২০ সেপ্টেম্বর জেলা ছাত্রলীগের কাউন্সিলে মারুফ ইবনে হোছেনকে সভাপতি করা জন্য আকুল আবেদন করেন জেলা সকল ছাত্র সংঘঠন ও জেলা প্রবীণ রাজনীতিবিদ গণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here