ইসরায়েল বাড়িঘর ভাঙছে ফিলিস্তিনি জেরুজালেম

0
83

ফিলিস্তিনি জেরুজালেম শহরতলী সামরিক বেড়ার কাছে বাড়িঘর গুড়িয়ে ‍দিচ্ছে । ‍ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভ প্রতিরোধ ও আন্তজাতিক সমালোচনাকে উপেক্ষা করে আজ সোমবার বুল ডোজার নিয়ে সুর বাহের গ্রামের ঘরবাড়ি ভাঙতে শুরু করেছে।

এলাকাটি ১৯৬৭ সালে মধ্যে প্রচ্য যুদ্ধে ইসরায়েল দখল করে নেই। ফিলিস্তিনি এই গ্রাম পূর্ব জেরুজালেমের প্রান্তে ।

ফিলিস্তিনি জেরুজালেমকে পবিত্র ভূমি বলে মনে করে। এখানে তিন লক্ষ ফিলিস্তিনি ও পাঁচ লক্ষ ইসরায়েলির বসবাস। ইসরায়েলের সুপ্রিম কোর্ট গত জুন মাসে এক আদেশে বলেছেন এই ভবনগুলো আদেশ অমান্য করে বানানো হয়েছে। তাঁদের এই বাড়িঘর গুলো থেকে সরে যাওয়ার জন্য শুক্রবার পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়। ইসরায়েলের এই পদক্ষেপের কারণে তাঁরা ঘরবাড়ী হারা হয়ে রাস্তায় নেমে যাবে বলেন ও তাঁদের অনেক ক্ষতি গ্রস্থ হবে বলেন । তাঁরা আরও বলেন ফিলিস্তিনির কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে বাড়িঘর তৈরি করেছেন বলে জানান । ইসরায়েলের দখল করা পশ্চিম তীরের কিছু এলাকার ফিলিস্তিনি শাসনে চলে। সুর বাহের পূর্ব জেরুজালেম এবং পশ্চিম তীরের মধ্যে অবস্থান করে এর কিছূ অংশ ইসরায়েল- অধ্যুষিত পূর্ব জেরুজালেমের পৌরসীমায় বাইরে।কিন্তু ইসরায়েলের সামরিক বেড়ার দিকে বিচ্ছিন্ন করে।

ফিলিস্তিনি স্বাধীনতা এক সংস্থা এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি আদালতকে অভিযুক্ত করে জানায় জেরুজালেমের বাড়ি ঘর ভেঙে, ইসরায়েলি দখল করে সক্ষম করে তুলতে আদলত ইচ্ছে মত আদেশ দিয়ে এক নজির স্থাপন করেছেন।

জাতি সংঘের মানব কল্য্যণ বিষয়ক সমন্বয়কারী জেমি ম্যাক গোল্ডরিক এবং অন্যান্য জাতিসংঘের কর্মকর্তারা বাড়িঘর ভাঙা বন্ধ রাখার প্রতি আহব্বান জানান ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষকে । ইসরায়েলি পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এক বিবৃতিতে বলেছেন, এই ধরনের নীতি চলমানের মধ্যে থাকলে দুই দেশের সমাধান ও শান্তি আনা প্রচেষ্টাকে খাটো করা হয়।

অনুমানিক রাত দুইটার সময় থেকে লোকজনকে জোর করে বাড়িঘর থেকে বের করে দেওয়া হয় ,এবং সেগুলো গুঁড়িয়ে দেওয়া জন্য বিষ্ফোরক দ্রব্য পৌঁতা শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী । হামদা হামদা নামের একজন কমিউনিটি নেতা এই কথা বলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here