অবশেষে জামিনে মুক্তি পেলেন মিন্নি

0
99

মোজাম্মেল হক,সিএনবি,কক্সবাজারঃ বরগুনার রিফাত হত্যার মূল সাক্ষী এবং রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।তবে কোন ধরণের গণ মাধ্যামের সাথে যোগাযোগ কিংবা সংবাদ সম্মেলনের অনুমতি দেন নি তাকে। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বৃহস্পতিবার এই রায় দিয়েছেন।

হাইকোর্টে তার জামিন হয়েছে ঠিকই কিন্তু তাকে বেশ কিছু শর্ত জড়িয়ে দিয়েছেন যা অমান্য করার সাথে সাথে তার জামিন বাতিল বলে ঘোষনা করা হবে।আজকে তার রায়ে আদালত বলেন- জামিনে থাকা অবস্থায় আয়শা সিদ্দিকা তাঁর বাবার জিম্মায় থাকবেন। আয়শা সিদ্দিকা গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন না।

শর্ত মানতে ব্যার্থ হলে তাঁর জামিন বাতিল হবে। আয়শা সিদ্দিকার জামিন প্রশ্নে হাইকোর্টের রুলের ওপর শুনানি গতকাল বুধবার শেষ হয়। শুনানি শেষে এ বিষয়ে রায়ের জন্য আজ (বৃহস্পতিবার) দিন রেখেছিলেন হাইকোর্ট। সে অনুযায়ী আজ রায় দিলেন আদালত।

সম্প্রতি সারা দেশ জুড়ে আলোচিত ঘটনার প্রধান সাক্ষী ও খুন হওয়া ব্যক্তির নিজ স্ত্রী আয়েশার উপরে সন্দেহের আঙ্গুল উঠলে তাকে তার নিজ বাসা থেকে ধরে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞেসাবাদ করলে সে পুলিশকে ঘটনার সাথে জড়িতের সত্যতা স্বীকার করেন। গত ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাত শরীফকে। রিফাত শরীফ হত্যার প্রধান আসামী নয়ন বন্ড নিহত হন পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে।সেই একই খুনের আসামীরা এখনো জেলে রয়েছেন। কিন্তু আজ জামিনে মুক্তি পেল তার স্ত্রী ও খুনের প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি।

স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনেই প্রকাশ্যে নয়ন বন্ডের সহযোগীরা কুপিয়ে হত্যার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর সারা দেশে আলোচিত একটি ঘটনায় পরিণত হয়। রিফাত হত্যার মূল আসামী পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হলেও অন্যান্য আসামীরা বিভিন্ন ভাবে পুলিশের হাতে আটক হয়।

তার মধ্যে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকার নাম ও উঠে আসে। ঘটনার তদন্তের সার্থে তার বাসা থেকে তুলে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞেসাবাদ করলে পুলিশের দাবি মিন্নি ঘটনার সাথে জড়িতের সত্যতা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়ে তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।গ্রেফতারে পর তাকে আদালতে হাজির করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।এরপর বিভিন্ন মেয়াদে তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞেসাবাদ করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here